১ম বর্ষ অনার্স ভর্তির মাইগ্রেসন ও কোটার ভর্তির বিস্তারিত জানুন

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে অনার্স ১ম বর্ষে ভর্তি কার্যক্রমের ২য় মেধা তালিকার বিষয় পরিবর্তন ও কোটার মেধা তালিকা প্রকাশ।

বিকাল ৪টার পরে এস.এম.এস এ এবং রাত ৯টার পরে অনলাইনে ফলাফল প্রকাশ করা হবে। অনলাইনে ফলাফল জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি বিষয়ক ওয়েবসাইটের পাশাপাশি http://dhakanewstime.com জানা যাবে। চলুন জেনে নেওয়া যাক ফলাফল জানার পদ্ধতি সমূহঃ

মোবাইলে ফলাফল দেখার পদ্ধতিঃ বিকেল ৪টার পর  মোবাইলে এস.এম.এস এর মাধ্যমে ফলাফল প্রকাশ হবে। এস.এম.এস এ ফলাফল দেখার পদ্ধতি নিচে দেওয়া হলোঃ

NU<space>ATHN<space>Roll No.

লিখে ১৬২২২ নম্বরে মেসেজ সেন্ড করে ফলাফল জানা যাবে।[maxbutton id=”5″ ] [maxbutton id=”2″ ]

অনলাইনে ফলাফল দেখার নিয়মঃ রাত ৯টার পর থেকে অনলাইনে উক্ত প্রকাশ করা হবে। ফলাফল দেখতে নিচে আপনার ভর্তির রোল নম্বর ও পিন নম্বর লিখে লগিন করতে হবেঃ

মাইগ্রেসন ও কোটার ফলাফল এর ফলাফল দেখতে লগিন করুন এখানেঃ

অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে ফলাফল জানতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন

ভর্তি সংক্রান্ত কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ও তারিখঃ

মাইগ্রেশন এর ক্ষেত্রেঃ

  • ২য় মেধা তালিকায় ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে যাদের বিষয় পরিবর্তন হবে তাদের পরিবর্তিত বিষয়ের ফরম প্রিন্ট করে সংশ্লিষ্ট কলেজে জমা দেয়ার তারিখঃ ৩০/১০/২০১৭ থেকে ০১/১১/২০১৭
  • কোন শিক্ষার্থীর মাইগ্রেশন করে বিষয় পরিবর্তন হলে তার পূর্বের বিষয়ের ভর্তি বাতিল হয়ে যাবে এবং পরিবর্তিত বিষয়ে তার ভর্তি নিশ্চিত হবে৷ তবে কোন শিক্ষার্থীর বিষয় পরিবর্তন না হলে তার পূর্বের বিষয়ে ভর্তি বহাল থাকবে ৷
  • বিষয় পরিবর্তনের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীকে নতুন করে কোন ফি প্রদান করতে হবে না।
  • বিষয় পরিবর্তনের ফরম সংশ্লিষ্ট কলেজ কর্তৃক অনলাইনে নিশ্চয়ন করতে হবে না৷

কোটার ক্ষেত্রেঃ

  • কোটার মেধা তালিকায় স্থান প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের অনলাইনে চূড়ান্ত ভর্তি ফরম পূরণ করার তারিখঃ ৩০/১০/২০১৭ থেকে ০১/১১/২০১৭
  • কোটার মেধা তালিকায় স্থান প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের অনলাইনে চূড়ান্ত ভর্তির ফরম প্রিন্ট করে ভর্তি ফি ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ সংশ্লিষ্ট কলেজে জমা দেয়ার সময়সীমাঃ ৩০/১০/২০১৭ থেকে ০২/১১/২০১৭
  • সংশ্লিষ্ট কলেজ কর্তৃক কোটার মেধা তালিকায় স্থানপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের চূড়ান্ত ভর্তি নিশ্চয়নের সময়সীমাঃ ৩০/১০/২০১৭ থেকে ০৪/১১/২০১৭ 

ভর্তি হতে যে সকল কাগজপত্র লাগবেঃ

  • অনলাইন থেকে মূল আবেদন ফর্মের – ২ সেট ( অবশ্যই A4 অফসেট সাদা কাগজেকালার প্রিন্ট করতে হবে)।
  • প্রাথমিক আবেদনের প্রবেশপত্র -২সেট।
  • পাসপোর্ট সাইজের ছবি ৪টি এবং স্ট্যাম্প সাইজ ৪টি পেছনে নাম লিখে দিতে হবে (কলেজভেদে কম বেশি হতে পারে)।
  • এসএসসি ও এইচএসসি এর সনদপত্র/প্রশংসা পত্রের সত্যায়িত ফটোকপি – ২ সেট।
  • এসএসসি ও এইচএসসি  মূল নম্বরপত্রের (এইচএসসি এর মুল কপি) সত্যায়িত ফটোকপি – ২ সেট।
  • এসএসসি ও এইচএসসি রেজিস্ট্রেশন কার্ডের (এইচএসসি এর মুল কপি) সত্যায়িত ফটোকপি – ২ সেট।
  • টাকা জমার রশিদ।
  • চারিত্রিক সনদপত্র (সাধারণত লাগেনা, কোন কোন কলেজে লাগতে পারে) – ২ টি।

উল্লেখ্য, সকল কাগজপত্র ২ কপি করে ২সেট বানাতে হবে যার এক কপি বিভাগীয় সেমিনারে এবং এক কপি অফিসে জমা দিতে হবে।

ভর্তি ফিঃ ভর্তি ফি কলেজ ভেদে ভিন্ন হয়ে থাকে তাই যার যার কলেজের নোটিশ বোর্ড থেকে জেনে নেওয়াই ভালো। সাধারণত  সরকারী কলেজ হলে ৪-৫ হাজার আর বেসরকারী কলেজে হলে ১০-২০ হাজার টাকার মধ্যে হয়ে থাকে।

কোটার মেধাতালিকায় সুযোগ পাননি?

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ফলাফল কয়েকটি ধাপে প্রকাশ করে। যেমনঃ

  • ১ম মেধাতালিকা (০২ অক্টোবর)।
  • ২য় মেধাতালিকা (আসন খালি থাকা সাপেক্ষে) ও মাইগ্রেসন (১৭ অক্টোবর)
  • কোটা ও ও মাইগ্রেসন (২৯ অক্টোবর) এবং
  • রিলিজ স্লিপ।

এরপর রিলিজ স্লিপের আবেদন ফরম ছাড়া হবে। আর কোন মেধা তালিকা কিংবা কোটাতে সুযোগ না পেলেও রিলিজ স্লিপের মাধ্যমে কোন না কোন কলেজে ভর্তির সুযোগ তো থাকছেই।

যারা রিলিজ স্লিপের আবেদন করতে পারবেঃ

  • যারা মেধা তালিকায় স্থান পায়নি
  • যারা মেধা তালিকায় স্থান পেয়েও ভর্তি হয়নি
  • যারা ভর্তি বাতিল করেছে।

We will be happy to hear your thoughts

Leave a reply

Dhaka News Time