“একটু সচেতনতাই পারে নদীর পূর্বের নাব্যতা ফিরিয়ে দিতে” এএফএম আলমগীর

আজ রোজ ২৪শে মে,২০১৯ইং তারিখে সকাল ১১টা ঘটিকায় বুড়িগঙ্গা নদীর তীরে রোটারী ক্লাব ঢাকা সেন্ট্রালের উদ্যােগে নদীদূষণ প্রতিরোধে একটি সচেনতামূলক মহতী কার্যক্রম সম্পাদিত হয়েছে। যারা নাম ছিল ” নদী দূষণ প্রতিরোধে আমাদের স্বদিচ্ছাই যথেষ্ট”।

উক্ত প্রোগ্রামে উপস্থিত ছিলেন রোটারী আন্তর্জাতিক জেলা সংগঠন ৩২৮১ এর জেলা গভর্ণর রোটারীয়ান এএফএম আলমগীর, বাংলাদেশ টেলিভিশনের সাবেক মহাপরিচালক এবং রোটারী ক্লাব অব ঢাকা সেন্ট্রালের অতীত সভাপতি রোটরীয়ান ম.হামিদ, এছাড়া উপস্থিত ছিলেন রোটারী ক্লাব অব ঢাকা সেন্ট্রালের সভাপতি রোটারীয়ান মোঃ মিজানুর রহমান ভূঁইয়া এবং রোটারঅ্যাক্ট ক্লাব অব ওয়ারীর সভাপতি রোটারঅ্যাক্টর মোঃ সাজ্জাদ জহীর। উক্ত প্রোগ্রামে আরো উপস্থিত ছিলেন আগত বিভিন্ন ক্লাবের রোটারীয়ান এবং রোটারঅ্যাক্টবৃন্দ।

আরো পড়ুন  কোরবানি ঈদ এবং আমাদের করণীয়

এ সময় রোটারীয়ান এএফএম আলমগীর বলেন, “নদীবিধৌত বাংলাদেশর দূষণ হওয়া নদীগুলোকে একটু সচেতনতাই পারে তা তার পূর্বের নাব্যতা ফিরিয়ে দিতে এবং দূষণরোধ করতে।” পরবর্তীতে বাংলাদেশ টেলিভিশনের সাবেক মহাপরিচালক এবং রোটারী ক্লাব অব ঢাকা সেন্ট্রালের অতীত সভাপতি রোটরীয়ান ম.হামিদ বলেন,”পানির অপর নাম জীবন। তাই পানি বিশুদ্ধ রাখার ক্ষেত্রে এবং নদীকে পরিচ্ছন্ন রাখার ক্ষেত্রে প্রত্যকের সুনাগরিকের দ্বায়িত্ব পালন করা উচিত।” রোটারী ক্লাব অব ঢাকা সেন্ট্রালের সভাপতি রোটারীয়ান মোঃ মিজানুর রহমান ভূঁইয়া বলেন,”প্রত্যেকটি মানুষ যদি নদীতে ময়লা আবর্জনা না ফেলে, নদীটিকে সংরক্ষণ করে তবেই টেকসই উন্নয়ন লক্ষমাত্রা অর্জন করা সম্ভব। “

আরো পড়ুন  কীভাবে বাংলাদেশ থেকে কানাডায় স্টুডেন্ট ভিসা পাবেন

রোটারঅ্যাক্ট ক্লাব অব ওয়ারীর সভাপতি রোটারঅ্যাক্টর মোঃ সাজ্জাদ জহীর বলেন,অবাধে নদীদূষণের ফলে মানুষের জীবন হুমকীর মুখে পরেছে।এ থেকে পরিত্রান পেতে এখনই সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।ধরিত্রীটাকে সকলের জন্য বাসযোগ্য অার নিরাপদ করতে নদীকে বাঁচানোর বিকল্প নাই।

সর্বশেষ গণমানুষের নিকট লিফলেট বিতরণ, রেলি এবং নৌকায় আহরণ করে নদী পরিষ্কার অভিযান করে সকলের মাঝে সচেতনতা তৈরীর মাধ্যমে প্রোগ্রামটি সমাপ্ত করণ করা হয়।

Dhaka News Time