ঢাবি অধিভুক্ত ৭ কলেজে ২৬ হাজার আসনে লড়বে ৯০ হাজার শিক্ষার্থী

ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় (ঢাবি) অধিভুক্ত রাজধানীর সাত সরকারি কলেজের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের অধীন স্নাতক (সম্মান) ভর্তির অনলাইন আবেদন গ্রহণ প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। প্রথমবারের মতো ঢাবির অধীনে হতে যাওয়া এ ভর্তি পরীক্ষা আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে শুরু হবে। ঢাবির ভর্তি পরীক্ষার আদলেই তা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছে বিশ^বিদালয় প্রশাসন। ভর্তি পরীক্ষায় ২৬ হাজার আসনের বিপরীতে লড়বে ৯০ হাজার শিক্ষার্থী। সে হিসেবে প্রতি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে প্রায় চারজন।

গত ১৪ নভেম্বর রাত ১২টায় আবেদন গ্রহণ প্রক্রিয়া শেষ হয়। সাত কলেজের অনলাইন ভর্তি কমিটি সূত্রে জানা গেছে, এ বছর অনার্সে তিন ইউনিটে ২৬ হাজার ৩৫টি আসন রয়েছে। এর মধ্যে কলা ও সামাজিক বিজ্ঞানে সর্বাধিক ১৪ হাজার ৩৫০টি, বিজ্ঞানে ছয় হাজার ৫০০টি এবং বাণিজ্য ইউনিটে সর্বনি¤œ ৫ হাজার ১৮৫টি আসন রয়েছে। এ আসনের বিপরীতে ইতোমধ্যে ৯০ হাজার ১৭৫টি আবেদনপত্র জমা পড়েছে বলে জানা গেছে। এর মধ্যে বিজ্ঞানে ২৬ হাজার ২৭২, কলা ও সামাজিক বিজ্ঞানে ২৩ হাজার ২৭ এবং বাণিজ্য ইউনিটে আবেদন করেছে ২১ হাজার ৬৭৬ জন শিক্ষার্থী। সে হিসাবে প্রতি আসনের বিপরীতে লড়বে ৩ দশমিক ৪৬ শিক্ষার্থী।Join DU 7 Colleges Group Like DU 7 Colleges Page

এ ছাড়া তিন বছর মেয়াদি পাসকোর্সে (ডিগ্রি) ভর্তির জন্য আসন রয়েছে ১১ হাজার। এর মধ্যে কলা ও সামজিক বিজ্ঞানে ৫ হাজার ৩০০, বিজ্ঞানে দুই হাজার ১০০ এবং বাণিজ্য ইউনিটে আসন রয়েছে তিন হাজার ৬০০টি। যারা অনার্সে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েও আসন খালি না থাকায় কিংবা অন্য কোনো কারণে অনার্সে ভর্তি হতে পারবে না তারা আগ্রহী হলে পাসকোর্সে (ডিগ্রি) ভর্তি হতে পারবে। সে ক্ষেত্রে আবেদনের সময় ‘পছন্দ অংশে’ কিক করতে হবে।
ভর্তি পরীক্ষার সময়সূচি
ডিসেম্বরে ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের অধীন স্নাতক সম্মান শ্রেণীর ভর্তি পরীক্ষা তিনটি ইউনিটের অধীনে অনুষ্ঠিত হবে। সমন্বিত কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা আগামী ১ ডিসেম্বর, বিজ্ঞান ইউনিটে ৮ ডিসেম্বর এবং পরিবর্তিত সময়সূচি অনুযায়ী বাণিজ্য ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে।

ঢাবির আদলেই ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে
পরীক্ষা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার আদলেই হবে বলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে। সংশ্লিষ্ট অনুষদের ডিনরা জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউনিটগুলোর মতোই অধিভুক্ত কলেজের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। তারা জানান, ভর্তি পরীক্ষা এমসিকিউ পদ্ধতিতে হবে এবং প্রত্যেক ইউনিটে ১২০ নম্বর ধার্য করা হয়েছে। একজন পরীার্থীকে পাস করতে হলে ন্যূনতম ৪০ শতাংশ অর্থাৎ ৪৮ নম্বর পেতে হবে। অন্যথায় তিনি ভর্তির জন্য বিবেচ্য হবে না।
ভর্তি ইচ্ছুকদের কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান ইউনিটে বাংলা, ইংরেজি, সাধারণ জ্ঞান (বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক) বিষয়ে ১০০টি প্রশ্নে পরীক্ষা দিতে হবে, বিজ্ঞান ইউনিটে দুইটি বাধ্যতামূলক (পদার্থবিজ্ঞান ও রসায়ন) বিষয়সহ গণিত, জীব বিজ্ঞান, বাংলা ও ইংরেজির মধ্যে মোট চারটি বিষয়ে পরীক্ষা দিতে হবে। বাণিজ্য ইউনিটে বাংলা, ইংরেজি, হিসাববিজ্ঞান, ব্যবসায়নীতি ও প্রয়োগ এবং মার্কেটিং অথবা ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিংয়ের মধ্যে পাঁচটি বিষয়ে পরীক্ষা দিতে হবে। এক ঘণ্টার এ ভর্তি পরীক্ষা সকাল ১০ থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মো: আখতারুজ্জামান বলেন, শিক্ষার্থীদের অধ্যয়ন করা বিষয়ের প্রতি লক্ষ্য রেখেই প্রশ্ন প্রণয়ন করা হবে। তারা যে যে বিষয়গুলো পড়ে এসেছে সে অনুযায়ী তাদের ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন করা হবে।
কলেজ ও বিষয় মনোনয়ন

ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মেধাক্রম অনুসারে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে কলেজ ও বিষয় পছন্দক্রম পূরণ করতে পারবে। মেধাক্রম অনুযায়ী আসন খালি থাকা সাপেক্ষো শিক্ষার্থীরা তাদের পছন্দের কলেজ ও বিভাগে (বিষয়) ভর্তির সুযোগ পাবে। এর মধ্যে ইডেন মহিলা কলেজ এবং বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজের আসনগুলো শুধু মেয়েদের জন্য এবং ঢাকা কলেজের আসনগুলো ছেলেদের জন্য সংরক্ষিত। সে দিক থেকে ছেলেরা বাকি পাঁচটি ও মেয়েরা বাকি ছয়টি কলেজে ভর্তি হতে পারবে। এ ক্ষেত্রেও আসন খালি থাকা সাপেক্ষে তারা ভর্তি হওয়ার সুযোগ পাবে।
রয়েছে কোটাপদ্ধতি

সাত কলেজে কর্মরত শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারী (ওয়ার্ডকোটা), উপজাতি বা ুদ্র নৃগোষ্ঠী, দলিত সম্প্রদায়, প্রতিবন্ধী (দৃষ্টি, বাক, শ্রবণ) ও মুক্তিযোদ্ধা (তাদের সন্তান, নাতি-নাতনী) কোটা সুবিধা রয়েছে। কোটায় ভর্তি হতে ইচ্ছুকদের অবশ্যই যে কোটায় ভর্তি হতে চায় তা উল্লেখ করতে হবে।

সাত কলেজসংক্রান্ত সব তথ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের (http://www.du.ac.bd) ওয়েবসাইটের (7 college) সাত কলেজ অপশনে গিয়ে জানা যাবে।
সার্বিক বিষয়ে সাত কলেজ অনলাইন ভর্তি কমিটির আহ্বায়ক ও ঢাবির ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম বলেন, স্বল্প সময়ে এ কলেজগুলোর ভর্তি কমিটির দায়িত্ব পেয়েছি। শুরু থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সীমাবদ্ধতা ছিল। ক্রমেই আমরা সেগুলো কাটিয়ে উঠছি। তিনি বলেন, প্রথমবারের মতো এ বিপুল শিক্ষার্থীর দায়িত্ব নিতে যাচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। তাই সুষ্ঠুভাবে এ দায়িত্ব সম্পাদন করতে সবার সহযোগিতা কাম্য। শিক্ষার্থীদের যাতে কোনো ধরনের সমস্যায় পড়তে না হয় সে বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের আন্তরিক প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।
উল্লেখ্য, গত ১৬ ফেব্রুয়ারি শিক্ষা কার্যক্রমে গতিশীলতা আনতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ঢাবির অধিভুক্ত করা হয় রাজধানীর সাত সরকারি কলেজকে। এগুলো হলো- ঢাকা কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ, সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ, কবি নজরুল সরকারি কলেজ, সরকারি বাংলা কলেজ ও সরকারি তিতুমীর কলেজ।

বন্ধুদের জন্য শেয়ার করে দিন

About Mohammad Rony

Mohammad Rony
মোহাম্মাদ রনি, বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় ও সর্বাধিক পঠিত অনলাইন ব্লগ সাইট "ঢাকা নিউজ টাইম"এর একজন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করছেন। সম্প্রতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ঢাকা কলেজ থেকে হিসাববিজ্ঞান বিষয় নিয়ে বি.বি.এ অনার্স সম্পন্ন করছেন। তিনি পাশাপাশি "ঢাকা আইটি সলিউসন" একজন ডিজিটাল মার্কেটার এবং গ্রাফিক ডিজাইনার হিসেবেও কর্মরত রয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি ।